এরদোগানের একের পর এক সমাবেশের কারণে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ

6

অনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস মহামারিতে বিশ্বের যে কটি দেশ সবথেকে বেশি বিধ্বস্ত হয়েছে তারমধ্যে তুরস্ক অন্যতম। ওই অঞ্চলের মধ্যে তুরস্কেই করোনার সংক্রমণ সর্বোচ্চ। এরইমধ্যে দেশটির সরকারি দল একে পার্টি আয়োজন করে চলেছে একের পর এক র‌্যালির। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে সমগ্র তুরস্কজুড়ে চলছে এই রাজনৈতিক কর্মসূচি। এতে কখনো সরাসরি আবার কখনো ভিডিও কলের মাধ্যমে যোগ দিচ্ছেন দলের প্রধান ও দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েফ এরদোগান।

তুরস্ক এখনা প্রাদেশিকভাবে করোনাভাইরাসের হিসেব প্রকাশ করছে। এতে দেখা যায় রিজে, ত্রাবজোন, গিরেসুন ও ওরদু প্রদেশে সবথেকে বেশি সংক্রমণ হচ্ছে। এসব প্রদেশেই রাজনৈতিক সমাবেশ করে চলেছেন এরদোগান।
সাম্প্রতিক হিসেবে রিজেতে সংক্রমণের হার প্রতি এক লাখে ২০০ জন। গিরেসুনে এ হার ২১৭, ত্রাবজোনে ২০৭ জন ওবং ওরদুতে ২২৮ জন। যেখানে ইস্তাম্বুল ও আংকারাতে এ হার যথাক্রমে ৬৮ ও ৩৫।

এরদোগান নিজেও গর্ব করে বলেন, আমরা মহামারির মধ্যে মিটিং আয়োজন করছি তারপরেও হলরুম কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে আছে। তবে বিষয়টিকে সহজভাবে দেখছেন না তুরস্কের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। তুর্কি মেডিকেল এসোসিয়েশনের পর্যবেক্ষণ বোর্ড জানিয়েছে, তুরস্কের যেসব অঞ্চলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে তার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ রয়েছে এরদোগানের সমাবেশের। তিনি যেখানেই সমাবেশ করছেন সেখানেই করোনার সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে।

তুরস্কের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এমনকি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকেও যে নির্দেশনার কথা বলা হয়েছে এরদোগান তার সবগুলিই ভঙ্গ করছেন। এ নিয়ে এরদোগানের দল একে পার্টির এমপি রাভজা কাভাকচি আল-জাজিরাকে বলেন, আমরা উদ্বেগের বিষয়টি জানি তবে এখন এই সমাবেশগুলোর প্রয়োজন রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here