কষ্টের জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল ভারত

9

স্পোর্টস ডেস্ক : হার্ডিক পান্ডিয়া ও রবিন্দ্র জাদেজার অসাধারণ ব্যাটিং এবং শার্দুল ঠাকুর ও থাঙ্গারাসু নাটারাজানের বোলিংয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষটায় জিতেছে ভারত। বুধবার ক্যানবেরার মানুকা ওভালে ৩০২ রান তুলে মাত্র ১৩ রানে জিতেছেন বিরাট কোহলি বাহিনী।

আগের দুই ম্যাচে টস জিতে চারশ’ ছোঁয়া রান করেছিল অস্ট্রেলিয়া। অ্যারন ফিঞ্চ-স্টিভ স্মিথের ব্যাটিং এবং হ্যাজলউড-কামিন্সের বোলিংয়ে সহজেই হারিয়েছিল সফরকারী ভারতকে। সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে টস জিতে ব্যাটিং নেয় ভারত। টস জয় তো ম্যাচ জয়- ভিত্তিতে শেষ ম্যাচে জিতে হোয়াইটওয়াশ এড়াল ভারত।

শেখর ধাওয়ানের ওপেনিং সঙ্গী হিসেবে এ ম্যাচে খেলেন ২১ বছরের শুভমন গিল। তিনি দেখান ৩৩ রানের আশা জাগানিয়া ইনিংস। তবে অন্য ওপেনার ধাওয়ান ১৬ রান তুলেই সাজঘরে ফিরে যান। তিনে নামা অধিনায়ক বিরাট খেলেন ৬৩ রানের ইনিংস। তবে শ্রেয়াস আয়ার ব্যর্থ হন এ ম্যাচেও। তিনি তোলেন ১৯ রান। এরপর কেএল রাহুল ৫ রানে ফিরতেই চাপ পড়ে পান্ডিয়া এবং জাদেজার কাঁধে।

তারা সেটা দারুণভাবে সামালও দেন। পান্ডিয়া করেন ৭৬ বলে সাত চার ও এক ছয়ে ৯২ রানের ইনিংস। জাদেজার ব্যাট থেকে আসে ৫০ বলে তিন ছক্কা ও পাঁচ চারে ৬৬ রানের ইনিংস। জবাব দিতে নেমে অজিদের ইনিংস ৩ বল থাকতে শেষ হয় ২৮৯ রানে।

ডেভিড ওয়ার্নারের ইনজুরিতে এ ম্যাচে মার্নাস লাবুশানে ওপেনিংয়ে নামেন। কিন্তু সুবিধা করতে পারেননি তিনি। ফিরে যান নটরাজানের বলে ৭ রান করে। তবে অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ এ ম্যাচেও পান রান। খেলেন ৭৫ রানের ইনিংস। কিন্তু আগের দুই ম্যাচেই সেঞ্চুরি পাওয়া স্মিথ এ ম্যাচে তাকে সঙ্গ দিতে পারেননি। ফিরে যান শার্দুল ঠাকুরের বলে ৭ রান করে।

এরপর ময়েস হেনরিক ২২ এবং ক্যামেরুন গ্রিন ২১ রানে সাজঘরে ফিরলে চাপটা আরও বাড়ে অজিদের ওপর। অ্যালেক্স কেরি এবং গ্লেন ম্যাক্সওয়েল সেই চাপটা সামাল দিয়ে দলকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন। কিন্তু কেরি ৩৮ করে রান আউট হলে এবং মেক্সি ৩৮ বলে ৫৯ করে ফিরলে ভারতকে হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ হাতছাড়া হয়ে যায় অজিদের। ভারতের হয়ে শার্দুল ঠাকুর তিনটি এবং নাটারাজান ও জাসপ্রিত বুমরাহ দুটি করে উইকেট নেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here