কানাডায় সম্মুখসারির যোদ্ধাদের প্রতি সম্মান

4

অনলাইন ডেস্ক : কানাডার আলবার্টা প্রদেশের ক্যালগেরিতে প্রবাসী বাঙালিদের উদ্যোগে মঙ্গলবার বাংলাদেশ সেন্টারের সামনে সম্মুখসারির যোদ্ধাদের সম্মানে এক মিনিটের অবিরাম করতালি দিয়ে সম্মান জানানো হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন, সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত বসু, কোষাধক্ষ্য শানিলা মাহমুদ পুনম, ক্যালগেরির ব্যবসায়ী আলম খন্দকার, ব্যবসায়ী ও প্রকৌশলী আবদুল্লা রফিক, প্রকৌশলী মো. কাদির, সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগারির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত, মিতা আলম ও বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির ইয়ুথ সেক্রেটারি নাদিয়া হাসান।

বাংলাদেশ কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন বলেন, বৈশ্বিক মহামারীর করোনাকালীন গত আট মাসে সম্মুখসারির যোদ্ধা যাদের আমরা হারিয়েছি তাদের পরিবারের প্রতি আমাদের গভীর সমবেদনা এবং যারা এখনও কাজ করে চলেছেন তাদের আমরা আন্তরিকভাবে অভিনন্দন জানাই।

সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত বসু বলেন, জাতির এ সংকটকালীন যারা জীবনবাজি রেখে কাজ করে চলেছেন তাদের প্রতি আমাদের অসীম কৃতজ্ঞতা।

ব্যবসায়ী আলম খন্দকার বলেন, যারা ইতোমধ্যে আত্মাহুতি দিয়েছেন তাদের প্রতি আমাদের বিনম্র শ্রদ্ধা, শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই।

ব্যবসায়ী ও প্রকৌশলী আবদুল্লা রফিক বলেন, বৈশ্বিক মহামারীর কঠিন এক সংকটময় মুহূর্ত আমরা এখন অতিক্রম করছি। এ কঠিন সময়ে সম্মুখযোদ্ধা যারা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তাদের প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

প্রকৌশলী মোহাম্মদ কাদির বলেন, যারা ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। আর সারা দিন-রাত পরিশ্রম করে সম্মুখসারিতে থেকে আমাদের যারা সেবা দিয়ে চলেছেন তাদের প্রতি আমাদের বিনম্র শ্রদ্ধা।

সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, আজকের এক মিনিটের অবিরাম করতালির মধ্য দিয়ে আমরা সেই সমস্ত সম্মুখযোদ্ধাদের অনুপ্রেরণা ও উৎসাহ দিতে চাই। জাতীয় সংকট ও ক্রান্তিকালে তারা সবসময় আমাদের পাশে থাকবে- এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

উল্লেখ্য, প্রবাসী বাঙালিদের উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানে সম্মুখসারির যোদ্ধা, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদরা এক মিনিটের অবিরাম করতালিতে অংশ নেন।

এছাড়াও এ সময় বক্তারা চ্যানেল আইয়ের “প্রকৃতি ও জীবন ফাউন্ডেশনের” সম্মুখসারির যোদ্ধাদের প্রতি এক মিনিটের অবিরাম করতালির অনুষ্ঠান আয়োজনেরও ভূয়সী প্রশংসা করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here