গ্রিসে শুভ জন্মাষ্টমী উদ্‌যাপন

10

অনলাইন ডেস্ক : শ্রীকৃষ্ণের মানবতার দর্শনকে স্মরণ করে গ্রিসে উদ্‌যাপিত হয়েছে হিন্দুধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান উত্সব শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি শুভ জন্মাষ্টমী। গতকাল শুক্রবার (২৩ আগস্ট) হিন্দু কমিউনিটি ইন গ্রিস বিপুল উত্সাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জন্মাষ্টমী উদ্‌যাপন করে।

এ উপলক্ষে দেশটির রাজধানী এথেন্সের ওমোনিয়ায় শ্যামমন্দিরে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হিন্দু কমিউনিটি ইন গ্রিস। মন্দিরে পূজারি ও ভক্তরা সমবেত হয়ে ধর্মীয় অর্চনার মধ্য দিয়ে শ্রীকৃষ্ণের জন্মতিথি উদ্‌যাপন করেন এবং দেশ ও জাতির কল্যাণের জন্য বিশেষ প্রার্থনা করেন।

এ ছাড়া সংগঠনটি এথেন্সে বিশেষ সম্প্রীতি শোভাযাত্রা আয়োজন করে। শোভাযাত্রা উদ্বোধন করেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন। শোভাযাত্রায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ী ও বিভাগভিত্তিক আঞ্চলিক সংগঠনের নেতারা।

রাষ্ট্রদূত নেতাদের সঙ্গে শোভাযাত্রায় অংশ নেন। এথেন্সের ওমোনিয়া কেন্দ্র থেকে শুরু করে সিনতাগমাতে গ্রিক সংসদ ভবন পর্যন্ত বিপুলসংখ্যক মানুষ উত্সবমুখর পরিবেশে শোভাযাত্রায় অংশ নেন।

সম্প্রীতি শোভাযাত্রা উদ্বোধনকালে রাষ্ট্রদূত প্রবাসী বাংলাদেশি হিন্দুধর্মাবলম্বীদের সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ ধর্মীয় সহিষ্ণুতা ও সম্প্রীতিপূর্ণ একটি দেশ। তিনি প্রবাসে বসবাস করেও ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে আবহমান বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে বিদেশের মাটিতে তুলে ধরার প্রয়াসকে সাধুবাদ জানান। তিনি প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ গড়ার জন্য সব ধর্মাবলম্বীর প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি আহ্বান জানান।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আয়োজিত সম্প্রীতি শোভাযাত্রাটি গ্রিসের সংসদ ভবনে সমাপ্ত হয়। বিপুলসংখ্যক মানুষ বর্ণিল সাজে সজ্জিত হয়ে আনন্দ ও উদ্দীপনার সঙ্গে শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

আয়োজকেরা গ্রিসের সংসদ ভবনের সামনে সমবেত লোকজনের উদ্দেশে শ্রীকৃষ্ণের দর্শন, মানুষে মানুষে সম্প্রীতির আহ্বানকে তুলে ধরেন এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বর্ণনা দেন।

এর আগে শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন শ্যামমন্দির পরিদর্শন করেন। তিনি অনুষ্ঠানের সার্বিক আবহ, আলোকসজ্জা, অসাম্প্রদায়িক পরিবেশসহ সার্বিক আয়োজনের জন্য উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ জানান। এ সময় রাষ্ট্রদূতের সহধর্মিণী শায়লা পারভীন, দূতাবাসের কাউন্সেলর মোহাম্মদ খালেদ, প্রথম সচিব সুজন দেবনাথসহ দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও দূতাবাস পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, শুভ জন্মাষ্টমীর অনুষ্ঠান উল্লেখযোগ্যসংখ্যক গ্রিক নাগরিক উপভোগ করেন এবং বাংলাদেশিদের মধ্যে বিদ্যমান সম্প্রীতি ও সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বিজ্ঞপ্তি

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here