ঢাকায় কোনো গ্যাং থাকবে না-ডিএমপি কমিশনার

1

অনলাইন ডেস্ক : ঢাকায় কোনো গ্যাং থাকবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। তিনি বলেন, কিশোর গ্যাং, বড় গ্যাং, স্থানীয় গ্যাং সব ধরনের গ্যাং-কে নিশ্চিহ্ন করে দেব। কিশোর গ্যাংয়ের কোনো অস্তিত্বই থাকবে না। গতকাল বেলা ১১টার দিকে ঢাকার লালবাগের হোসনি দালান ইমামবাড়ায় পবিত্র আশুরা উপলক্ষে নিরাপত্তাব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ঢাকায় গ্যাং বলে কোনো শব্দ থাকবে না। সবাইকে নিশ্চিহ্ণ করা হবে। প্রতি বছর তাজিয়া মিছিলে কিশোর গ্যাংরা ঝামেলার সৃষ্টি করে। তাই এ বছর তাজিয়া মিছিলে কাউকেই নাশকতা করতে দেয়া হবে না।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে চারটা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত হাতিরঝিলে কিশোর গ্যাংয়ের সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে শতাধিক কিশোর ও তরুণকে আটক করে হাতিরঝিল থানা পুলিশ। এর আগে বুধবার রাতে মোহাম্মদপুর চান মিয়া হাউজিংয়ে কিশোর গ্যাং দ্বন্ধে মহসিন নামের ১৪ বছর বয়সী এক কিশোর খুন হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, আধিপত্য বিস্তার ও মেয়ে সংক্রান্ত জেরেই ওই কিশোরকে হত্যা করা হয়েছে। জন্মাষ্টমীর শোভাযাত্রার দিন মোহাম্মদপুরে দুই র‌্যাব সদস্যকে ধাওয়া করে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা।

তাজিয়া মিছিলে থাকবে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা: ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, পবিত্র আশুরা উপলক্ষে আয়োজিত তাজিয়া মিছিলে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে মিছিল শুরু হওয়ার পর আর কাউকে মিছিলে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। হোসনি দালান, ইমামবাড়া, মিরপুর, বড়কাটারা, ছোট কাটারা ও মোহাম্মদপুর এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি ইমামবাড়া সিসিটিভি দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। যারা শ্রদ্ধা জানাতে আসবেন তাদের প্রত্যেকেই আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেকটরে তল্লাশি হয়ে আসতে হবে।

কমিশনার বলেন, মিছিলে কোনো ধরনের ধাতব বস্তু, ছুরি-তরবারি, আগুন জাতীয় বস্তু আনা নিষিদ্ধ। মিছিল যে রাস্তা দিয়ে যাবে ওই রাস্তায় আমাদের চেকপোষ্ট থাকবে। মিছিলে সব ধরনের বাদ্যযন্ত্র নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এটি সম্পূর্ণ শোকের মিছিল। এছাড়া পাইকরা মিছিলে অংশ নিতে পারবে না। কারণ তারা মিছিলে অংশ নিয়ে তাদের শরীরের বিভিন্ন অংশ কেটে শোক প্রকাশ করত। এতে বিশৃঙ্খলা ও এক ধরণের ভীতি সৃষ্টি হত। তিনি বলেন, মিছিল চলা অবস্থায় ইমাম বাড়া গুলোতে আমাদের স্পেশাল ব্রাঞ্চ এবং কাউন্টার টেররিজম হউনিটের ডগস্কয়ার্ড দ্বারা সুইপিং করা হবে। নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হওয়ার বিষয়টি মাথায় রেখে মিছিল পরিচালনা করব।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here