প্রথমবার শচীনের হাতছোঁয়ার অনুভূতির কথা জানালেন যুবরাজ

2

স্পোর্টস ডেস্ক : তারকাদেরও যে তারকা থাকে তা বোঝা গেল ভারতের ২০১১ সালের বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক যুবরাজ সিংয়ের কথায়।

‘স্টোরিজ বিহাইন্ড স্টোরি’তে একসময়ের সতীর্থ ও লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকারের সঙ্গে প্রথমবার সৌজন্য সাক্ষাতের স্মৃতিচারণ করেছেন এই সাবেক অলরাউন্ডার।

শচীনের হাতের স্পর্শের অনুভূতি যেন না শেষ হয়ে যায়। তাই অনেকটা সময় হাত ধুতে চাননি যুবরাজ সিং। নেটফ্লিক্সের ওই ভিডিওতে এমনটিই জানালেন যুবরাজ সিং।

তিনি বলেন, ‘২০০০ সালে ভারতের হয়ে আমার অভিষেক হয়। আমি রীতিমতো আনন্দের ঢেউয়ে ভাসছিলাম। যাদের ভক্ত আমি, তাদের সঙ্গে মাঠে নামার সুযোগ পেয়েছি। সে এক ভাষায় প্রকাশহীন আনন্দ। ঠিক যেমন অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট খেলে নিজের হিরোদের সঙ্গে পড়ার সুযোগ পেলে যা হয়। সবসময় টেন্ডুলকার, গাঙ্গুলী, দ্রাবিড়, কুম্বলে, শ্রীনাথ– দলে সব বড় ক্রিকেটাররা ছিলেন। হঠাৎই মনে হতো, এ আমি কোথায় আছি!’

এর পরই শচীন প্রসঙ্গে কথা বলেন যুবরাজ।

তিনি বলেন, ‘টিম বাসে পেছনের সিটে বসতাম আমি। আমার মনে আছে– একদিন শচীন হঠাৎ আসেন এবং আমি, জহির, বিজয় দাহিয়া, যারা নতুন ছিলাম, তাদের সঙ্গে হাত মেলাই। যখন শচীন পেছন ফিরে নিজের সিটে গিয়ে বসে, আমি আমার হাতটা সারা শরীরে বুলিয়ে ছিলাম। আমি গোসল করতে চাইছিলাম না; কারণ আমি শচীনের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করেছিলাম।’

ভিডিওতে শচীন টেন্ডুলকারকে ভারতীয় ক্রিকেটের মাইকেল জর্ডন বলে আখ্যা দেন যুবরাজ।

২০০০ সালের ৩ অক্টোবরে কেনিয়ার বিপক্ষে অভিষেক ঘটে যুবরাজ সিংয়ের। ২০১৭ সালের ৩০ জুন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ ওয়ানডে খেলেন। ১৭ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে ৩০৪ ম্যাচ খেলে ১৪ সেঞ্চুরি ও ৫২ হাফসেঞ্চুরিতে ৮৭০১ রান করেছেন। ৪০ টেস্টে করেছেন ১৯০০ রান। সেঞ্চুরি রয়েছে ৩টি। ১৩২টি আইপিএল খেলে ২৭৫০ রান করেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here