ফাউচির পরামর্শ শুনলে যুক্তরাষ্ট্রে ৮ লাখের বেশি মানুষ মারা যেতো : ট্রাম্প

3

অনলাইন ডেস্ক : নির্বাচনী প্রচারণায় যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউচির ওপর চড়াও হয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই বিশেষজ্ঞের পরামর্শ শুনলে মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রের আট লাখের বেশি মানুষ মারা যেতো বলে দাবি করেন তিনি। গতকাল সোমবার নিজের প্রচার কর্মীদের এক সম্মেলনে মহামারি করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ফাউচির ভূমিকা নিয়ে এ দাবি করেন ট্রাম্প।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৮৪ সাল থেকে ড. অ্যান্থনি ফাউচি যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (এনআইএআইডি) পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক অবস্থায় তিনি হোয়াইট হাউজের করোনা টাস্কফোর্সের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। পরবর্তী সময়ে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে মতবিরোধের জের ধরে ওই টাস্কফোর্স বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

সোমবার নিজের প্রচার কর্মীদের সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘মানুষ করোনাভাইরাস নিয়ে ক্লান্ত। ফাউচি আর এসব অপদার্থদের কথা শুনতে শুনতেও মানুষ ক্লান্ত।’

মার্কিন সরকারের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করে আসা ড. অ্যান্থনি ফাউচি ‘ভালো মানুষ’ ছিলেন উল্লেখ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘তবে তিনি এক জায়গায় পাঁচশ’ বছর ধরে রয়েছেন।’

কোন প্রমাণ উল্লেখ ছাড়াই ট্রাম্প দাবি করেন, ফাউচির পরামর্শ যদি তিনি শুনতেন তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের আট লক্ষাধিক মানুষ এই মহামারিতে মারা যেতো। তিনি বলেন, ‘ফাউচি একটা বিপর্যয়।’

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের মহামারিতে যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ৮২ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। আর এই মহামারিতে প্রাণ হারিয়েছে দেশটির ২ লাখ ২০ হাজারের বেশি মানুষ। বিরোধীদের অভিযোগ, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভাইরাসটির ভয়াবহতাকে খাটো করে দেখানোর চেষ্টা করার কারণেই দেশটির বহু মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। তবে তা অস্বীকার করে আসছেন ট্রাম্প।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here