বাচ্চাদের মাস্ক পড়ার নতুন নির্দেশনা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

5

অনলাইন ডেস্ক : বাচ্চাদের মাস্ক পড়ার বিষয়ে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে পাঁচ বছরের নীচের বাচ্চাদের মাস্ক পরাতে হবে না। সংশোধিত গাইডলাইনে এমনই তথ্য উঠে এসেছে।

এর আগে, ইউনিসেফ ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছিল যাঁদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা রয়েছে বা নিজে থেকে মাস্ক খুলতে পারেন না, তাঁদের মাস্ক পরা উচিত নয়।পাঁচ বছরের নীচের শিশুদের মাস্ক পরানোর প্রয়োজন নেই। বরং মাস্ক পরলে আরও বেশি ক্ষতি হতে পারে। কারণ তাঁরা মাস্কের সঠিক ব্যবহার জানে না।খুব ছোট বাচ্চাদের করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কম বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। কিন্তু তারা মাস্ক পরলে অন্যদের ঝুঁকির সম্ভাবনা অনেক বেশি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে মাস্ক পরার ও খোলার বেশ কিছু নিয়ম রয়েছে। সেই নিয়ম মেনে মাস্ক পরলে, তবেই তা পরা উচিত। মাস্কের সামনের অংশে হাত না দেওয়া, হাতে স্যানিটাইজার দিয়ে তারপরেই মাস্ক পরা ইত্যাদি। তাই বাচ্চাদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম পালন করে চলা প্রায় অসম্ভব।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দাবি ছয় থেকে ১১ বছরের শিশুদের ক্ষেত্রে নিয়ম অন্য। এই বয়সের শিশুরা করোনা সংক্রমণ নিয়ে খুব বেশি জানে না। মাস্কের ব্যবহার সম্পর্কেও তাদের ধারণা নেই। তাই বড়দের উপস্থিতি ছাড়া এদের মাস্ক পরানো উচিত হবে না। তবে ১২ বছরের ওপরের বাচ্চাদের বড়দের মতোই মাস্ক পরার নিয়ম ও স্যানিটাইজার ব্যবহারের নিয়ম মেনে চলা উচিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here