মার্চ থেকে ভারতে খোলাবাজারে মিলতে পারে করোনার ভ্যাকসিন

4

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, মার্চ মাসে বেসরকারি হাসপাতাল ও সংস্থার হাতে এসে পৌঁছতে পারে করোনার ভ্যাকসিন।

ভারতের কেন্দ্রীয় ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ডিসিজিআই সেরাম ইনস্টিটিউটকে ইতিমধ্যে অক্সফোর্ডের টিকা নিয়ন্ত্রিত ও জরুরি ব্যবহারের জন্য ছাড়পত্র দিয়েছে। সেই কারণে সংস্থা প্রথমেই টিকা বেসরকারি সংস্থার হাতে পৌঁছে দিতে পারবে না বলে জানা গেছে।

ভারত সরকার ইতিমধ্যেই সেরাম ইনস্টিটিউটকে জানিয়েছে, মাসে ৫ থেকে ৬ কোটি করোনার ডোজ প্রয়োজন হবে কেন্দ্রীয় সরকারের। সরকারের কাছে টিকা পিছু দাম ২০০ রুপি হলেও বাজারে ভ্যাকসিন প্রতি খরচ করতে হবে ১ হাজার রুপি।

এখনও সরকারের কাছ থেকে টিকার বিষয়ে চূড়ান্ত চিঠি পায়নি সেরাম ইনস্টিটিউট। সেটা পাওয়ার পর সরকারের নির্দেশ মতো প্রথমে প্রয়োজনীয় ও জরুরি ক্ষেত্রের জন্য টিকা সরবরাহ করা হবে। তারপর সেরা এই টিকা বেসরকারি হাসপাতাল ও সংস্থাগুলিকে পৌঁছে দেবে। আদর পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, যদি টিকার কার্যকারিতা ৯০ শতাংশ পর্যায়ে নিয়ে যেতে হয়, তাহলে অপেক্ষাকৃত বেশি সময়ের ব্যবধানে টিকা নিতে হবে সাধারণ মানুষকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here