যুক্তরাষ্ট্রে গভর্নর অপহরণের পরিকল্পনায় আটক ১৩

3

অনলাইন ডেস্ক : মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেমোক্রেট দলীয় গভর্নর গ্রেচেন হুইটমারকে অপহরণ এবং তার কার্যালয়ে হামলার পরিকল্পনা ভণ্ডুল করে দিয়েছে দেশটির ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই)। একই সঙ্গে, ওই পরিকল্পনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১৩ জনকে আটক করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যম সিএনএন ও বিবিসি এসব জানিয়েছে।
এফবিআই’র পক্ষ থেকে প্রকাশিত এক মামলার বিবরণীতে জানানো হয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘চক্ষুশূল’ হিসেবে খ্যাত মিশিগান গভর্নরকে অপহরণ পরিকল্পনার সঙ্গে জড়িত ছিল উলভারিন ওয়াচম্যান নামের একটি জঙ্গি সংগঠন। এফবিআই ওই পরিকল্পনা ভণ্ডুল করে দিয়ে উলভারিন ওয়াচম্যানের সাত সসদ্যসহ ১৩ জনকে আটক করেছে।
এ ব্যাপারে মিশিগান অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল ডানা ন্যাসেল এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চেষ্টায় মিশিগানের সরকারি কর্মকর্তা এবং জনসাধারণকে লক্ষ্য করে সাজানো একটি হামলার পরিকল্পনা ভেস্তে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।
মিশিগানের অ্যাটর্নি জেনারেল আরও জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সন্দেহজনক কার্যক্রমের সূত্র ধরে ওই অপহরণ পরিকল্পনার ব্যাপারে জানতে পেরেছিল এফবিআই।
করোনাকালে লকডাউনে বেশ কড়াকড়ি আরোপ করেন মিশিগানের গভর্নর। এ কারণে লকডাউনবিরোধী অনেক মিছিলে তাঁকে জার্মান শাসক অ্যাডলফ হিটলারের সঙ্গেও তুলনা করা হয়।
অভিযুক্ত ওই শ্বেতাঙ্গ দলটি বিশ্বাস করে, বেশ কিছু অঙ্গরাজ্যের গভর্নর মার্কিন সংবিধানের অমার্যাদা করছেন। তাই উগ্রবাদী এই দলটি মিশিগানের গভর্নরকে অপহরণের ছক কষছিল।
আটক মোট ১৩ জনের মধ্যে ছয়জনের বিরুদ্ধে অপহরণের পরিকল্পনা ও ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনেছে এফবিআই। তাঁরা হলেন অ্যাডাম ফক্স, ব্যারি ক্রফট, কালেব ফ্র্যাঙ্কস, ড্যানিয়েল হ্যারিস, ব্র্যান্ডন ক্যাসেরটা ও টে গারবিন।
এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় গ্রেচেন হুইটমার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘গভর্নর হিসেবে বাইবেল ছুঁয়ে শপথ নেওয়ার সময় আমি জানতাম, কঠিন দায়িত্ব নিতে যাচ্ছি। কিন্তু এ ধরনের ঘটনার মুখোমুখি হতে হবে, তা ভাবতে পারিনি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনেক ধন্যবাদ।’
এদিকে এমন ঘটনার জন্য ডেমোক্রেটিক নেতা গ্রেচেন হুইটমার মার্কিন প্রেসিডেন্টের দিকে আঙুল তুলেছেন। হুইটমার বলেন, কিছুদিন আগেই ট্রাম্প বলেছিলেন, শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদীর অস্তিত্ব নেই। ট্রাম্পের এ ধরনের কথার কারণেই মূলত উগ্রবাদীরা আরো ভয়ানক হয়ে ওঠে। সূত্র : বিবিসি

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here