রাজধানীর নয়াপল্টনসহ কয়েকটি স্থানে বাসে আগুন

9

অনলাইন ডেস্ক : রাজধানীতে নয়াপল্টনসহ ১০টি স্থানে বাসে আগুন দেয়ার তথ্য জানা গেছে। এখন পর্যন্ত নয়াপল্টন, গুলিস্তান, প্রেসক্লাব ও শাহবাগে বাসে আগুন দেয়ার তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে চলমান নির্বাচন পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করতে একটি মহল বাসে আগুন দিচ্ছে।

ঢাকা-১৮ ও সিরাজগঞ্জ-১ আসনে উপনির্বাচনে বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। দুটি আসনেই ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট নেয়া হচ্ছে। আসন দুটির উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ ছয়টি রাজনৈতিক দলের আটজন প্রার্থী। ঢাকা-১৮ আসনে প্রার্থী দিয়েছে প্রধান তিন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি-জাপা। আর সিরাজগঞ্জ-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন শুধু আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থী।

এদিকে এ দুই আসনে শুধু নির্বাচন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বাকি সব অফিস খোলা থাকছে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহারা খাতুন গত ৯ জুলাই মারা যাওয়ায় ঢাকা-১৮ আসন এবং মোহাম্মদ নাসিম ১৩ জুন মারা গেলে সিরাজগঞ্জ-১ আসন শূন্য ঘোষণা করে জাতীয় সংসদ। সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতায় এ আসন দুটিতে উপনির্বাচন হচ্ছে।

ঢাকা-১৮ আসনটি ঢাকা উত্তর সিটির ১, ১৭, ৪৩ থেকে ৫৪ নম্বর ওয়ার্ড ও বিমানবন্দর এলাকা নিয়ে গঠিত। মোট ভোটার ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৮৮ জন। এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ছয় জন। এরা হলেন, আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ হাবিব হাসান, বিএনপির এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, জাতীয় পার্টি-জাপার মো. নাসির উদ্দিন সরকার, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো ওমর ফারুক, গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ ও পিডিপির মো. মহিববুল্লা বাহার।

অপর দিকে সিরাজগঞ্জের কাজীপুর, সদরের একাংশ ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত সিরাজগঞ্জ-১ আসন। এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তানভীর শাকিল জয় ও বিএনপির প্রার্থী মো. সেলিম রেজা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৬০৩ জন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here