রোহিতের সঙ্গে দ্বন্দ্ব নিয়ে মুখ খুললেন কোহলি

0

স্পোর্টস ডেস্ক : রোহিত শর্মার সঙ্গে বিরাট কোহলি‘ফাটল ধরেছে ভারতীয় দলে’— গত দুই দিনে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের সারাংশ। সেখানে দলের দুই সেরা খেলোয়াড় বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার বরফ শীতল সম্পর্ক নিয়ে হয়েছে ব্যাপক আলোচনা। এমনও খবর ছিল, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিসিআই) নাকি দুই ক্রিকেটারকে ‘এক’ করতে পারছে না! অবশেষে মুখ খুললেন কোহলি। মিডিয়ায় প্রকাশিত সব খবরকে ‘বিভ্রান্তমূলক’ ও ‘হাস্যকর’ উল্লেখ করে উড়িয়ে দিলেন তিনি।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে হয়েছে ভারতকে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হারের ওই ম্যাচ থেকেই ভারতীয় ড্রেসিং রুমে চিড় ধরার খবর একটু একটু ‍চাউর হতে থাকে। যেটা বড় আকার ধারণ করে ভারতের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে যাওয়ার আগমুহূর্তে। কিউইদের বিপক্ষে সেমিফাইনাল হারের পর ব্যর্থতার জন্য কোহলি দায়ী করেছিলেন বোলারদের। যদিও দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড় কোহলির বক্তব্যের সঙ্গে একমত ছিলেন না। যার মধ্যে রোহিতও ছিলেন। তাছাড়া বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেওয়ার পর ভারতীয়দের কোহলিকে সরিয়ে রোহিতকে অধিনায়ক করার দাবিতে আরও জটিল হয়ে ওঠে পরিস্থিতি।

সংবাদমাধ্যমে সেই খবর আরও বড় আকারে প্রকাশ পায় ইনস্টাগ্রামে রোহিতের স্ত্রী ঋতিকা ও কোহলির স্ত্রী আনুশকা শর্মা একে অন্যকে ‘আনফলো’ করে দেওয়ায়। ঘোলাতে পরিস্থিতি ঠিক করতে ‘বাতিল করা’ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়েছিলেন কোহলি। যদিও সূচি অনুযায়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাওয়ার আগে সংবাদ সম্মেলন করার কথা ছিল না ভারতীয় অধিনায়কের।

সোমবার মুম্বাইয়ের সংবাদ সম্মেলনে মিডিয়ায় প্রকাশিত সব খবরকে উড়িয়ে দিয়েছেন কোহলি। এই সব কথা কেন উঠছে, তা নিয়ে বিস্মিত এই ব্যাটসম্যান। রোহিতের সঙ্গে সম্পর্কে চিড় ধরা প্রসঙ্গে তার বক্তব্য, ‘আমি এমন একজন মানুষ, যদি কাউকে পছন্দ না হয় কিংবা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগি, তাহলে আমার চোখেমুখে ও অঙ্গভঙ্গিতে তা ফুটে ওঠে। যখনই সুযোগ আসে আমি সবসময় রোহিতের প্রশংসা করি, কারণ আমি বিশ্বাস করি ও (রোহিত) ভালো। আমাদের কোনও ঝামেলা নেই। সত্যি বলতে বিষয়টি বিভ্রান্তিকর।’

দলে ফাটল ধরা প্রসঙ্গে কোহলি বলেছেন, ‘বাইরে থেকে আমি শুনলাম দলের পরিবেশ নাকি ঠিক নেই। যদি ঠিকই না থাকতো তাহলে একসঙ্গে আমরা দুই-তিন বছর খেলতে পারতাম না। আমি জানি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভালো করতে হলে ড্রেসিং রুমের পরিবেশ ভালো থাকার সঙ্গে প্রত্যেকের প্রতি বিশ্বাস থাকাটাও জরুরি।’ সঙ্গে যোগ করলেন, ‘যদি সেটা না থাকতো, তাহলে ‍আমার মনে হয় না ‍আমরা আজকের এই অবস্থানে থাকতে পারতাম। প্রত্যেকের প্রতি প্রত্যেকের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা না থাকলে ওয়ানডেতে ৭ থেকে ১ নম্বরে আসার এই জার্নিটা করতে পারতাম না।’

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরকে উড়িয়ে দিয়ে কোহলির উদাহরণ, “এই ধরনের খবর হাস্যকর। গত কয়েকদিনে ‍আমি বেশ কয়েকটি ইভেন্টে গিয়েছিলাম, সেখানে সবাই খুব আবেগপ্রবণ ছিল। তারা সবাই বলেছে, ‘আপনারা ভালো খেলেছেন (বিশ্বকাপে), আমরা আপনাদের সম্মান জানাই।’ অথচ মিথ্যা কিছু বিষয় আমাদের খাওয়ানো হচ্ছে, অন্যরকম চিত্র তুলে ধরে ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে মাথায়।”

এই ধরনের বিষয় সামনে আনার কারণও খুঁজে পাচ্ছেন না কোহলি, ‘আমি জানি না এই কাজগুলো করে কারা লাভবান হচ্ছে। ‍আমরা কঠোর পরিশ্রম করে ভারতীয় ক্রিকেটকে শীর্ষে নিয়ে এসেছি। গত চার বছরে ৭ থেকে ১ নম্বরে এসেছি, অথচ ‍চার বছর পর আমরা এখন কী নিয়ে কথা বলছি!’ ক্রিকইনফো, ক্রিকবাজ

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here