সভাপতি পদ ছেড়েই দিলেন রাহুল গান্ধী

6

অনলাইন ডেস্ক : অনেক জল্পনা-কল্পনার পরে ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন রাহুল গান্ধী। সর্বশেষ লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির জন্য নিজের দায়ভার স্বীকার করে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি। নির্বাচনের পরেই পদত্যাগের ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন রাহুল। দলীয় উচ্চপদস্থ নেতারা এতদিন তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন রাহুল গান্ধী।

বুধবার রাহুল গান্ধী বললেন, আমি আর কংগ্রেস সভাপতি নই। দলকে অবশ্যই শিগগিরই একজন নতুন সভাপতি বেছে নিতে হবে। আমি এরই মধ্যে পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছি।

ভারতের ঐতিহ্যবাহী দল কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটিতে তিনি এ মন্তব্য করেছেন। এতে শীর্ষ নেতারা তাকে পদত্যাগপত্র প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য নানাভাবে চেষ্টা করেন, অনুরোধ জানান। কিন্তু কিছুতেই এতে রাহুল গান্ধীর মন গলেনি। বার্তা সংস্থা এএনআই’কে উদ্ধৃত করে এ কথা জানিয়েছে অনলাইন জি নিউজ। এতে বলা হয়েছে, রাহুল গান্ধী ওই বৈঠকে বলেছেন, আর বিলম্ব না করে দ্রুততার সঙ্গে দলের নতুন প্রেসিডেন্টের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। এ প্রক্রিয়ার মধ্যে তিনি কোথাও নেই। এ জন্য দলের ওয়ার্কিং কমিটির উচিত যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বৈঠক আহ্বান করে সিদ্ধান্ত নেয়া।

রাহুল গান্ধীর পিতা, দাদী এবং দাদীর পিতা- সকলেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বিবিসি জানিয়েছে, পদত্যাগপত্রে তিনি কারো ওপরে কোনো ক্ষোভ নেই বলে জানিয়েছেন। এতে তিনি লেখেন, যদিও ভারতের ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি নিয়ে তার কোনো ‘ঘৃণা বা ক্ষোভ’ নেই, কিন্তু ভারত নিয়ে তাদের দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়টিকে তার শরীরের প্রতিটি কোষ বিরোধিতা করে। বিজেপির রাজনীতি বিভেদ ও ঘৃণার ওপর প্রতিষ্ঠিত বলেও উল্লেখ করেন রাহুল। গত লোকসভা নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। রাহুল গান্ধী বলেন, শুধু একটি রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধেই আমাদের লড়তে হয়নি। রাষ্ট্র ভারতের পুরো ব্যবস্থার বিরুদ্ধেই আমাদের লড়তে হয়েছে।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে বড় জয় পেয়েছে বিজেপি। তাদের এই বড় বিজয় বিরোধী দল ও পণ্ডিতদের হতবাক করে তুলেছে। অনেক বিশ্লেষকই আশা করেছিলেন যে, নির্বাচনের ফলাফলে পার্থক্য হবে সামান্য। ২০১৪ সালের নির্বাচনে যখন কংগ্রেস শোচনীয়ভাবে পরাজিত হয়, তখনো দলটির সামনে ছিলেন রাহুল গান্ধী। ওই নির্বাচনে ৫৪৩ আসনের মধ্যে কংগ্রেস মাত্র ৪৪টি আসনে জয় পেয়েছিল। এ বছর তারা আসন পেয়েছে ৫২টি। উত্তর প্রদেশে তাদের পারিবারিক আসন আমেথির আসনেও পরাজিত হয়েছেন রাহুল গান্ধী। যদিও কেরালা রাজ্যের একটি আসনে জয় পাওয়ায় এমপি হয়েছেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here