স্মার্টফোনের ইকোসিস্টেম গড়ে তুলছে হুয়াওয়ে

0

অনলাইন ডেস্ক : বিশ্বজুড়ে স্মার্টফোনের উন্নয়নে ইকোসিস্টেম গড়ে তুলছে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। ৯ লাখ নিবন্ধিত ডেভেলপার, চীনের বাইরে ১০ কোটির বেশি হুয়াওয়ের মোবাইল সেবা (এইচএমএস) গ্রহীতা, হুয়াওয়ের অ্যাপ গ্যালারি থেকে ১ বিলিয়নের বেশি অ্যাপ ডাউনলোড, প্রতিবছর চীনের বাইরে ২৮০ মিলিয়নের বেশি থিম ডাউনলোড ইত্যাদি সাফল্য নিয়েই এই ইকোসিস্টেম গড়ে তুলছে শীর্ষস্থানীয় এই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি।

সম্প্রতি চীনের ডংগুয়ানে অনুষ্ঠিত ‘হুয়াওয়ে ডেভেলপার কনফারেন্স-২০১৯’ আয়োজনে ভবিষ্যৎ হুয়াওয়ের নানা কর্মপরিকল্পনার কথা উঠে আসে। ডেভেলপারদের নিয়ে আয়োজিত বিশেষ এ কনফারেন্স ৯ থেকে ১১ আগস্ট অনুষ্ঠিত হয়।

কনফারেন্সে ‘শাইনিং স্টার’ নামে নতুন কর্মসূচি আয়োজনের ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানটি। কর্মসূচির আওতায় ডেভেলপারদের সহায়তার জন্য ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ ঘোষণা করে প্রতিষ্ঠানটি। এর মাধ্যমে অ্যাপ ডেভেলপারদের সম্পৃক্ততা বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন আলোচকেরা। এ ছাড়াও এটি হুয়াওয়ের ডিজিএক্স ল্যাব ডেভেলপারদের কর্মদক্ষতা উন্নয়ন ও পরীক্ষার সুযোগ তৈরি করে দেবে।

কনফারেন্সে হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের মোবাইল সার্ভিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট জার্ভিস সু বলেন, ‘বুদ্ধিভিত্তিক সংযোগই ভবিষ্যৎ। ৯ লাখ ১০ হাজারের বেশি ডেভেলপার ও চীনের বাইরে ১০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারীদের মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরিতে কাজ করছে হুয়াওয়ের মোবাইল সার্ভিসেস প্ল্যাটফর্ম।

হুয়াওয়ের নতুন ডিজিএক্স ল্যাব ২০১৯ সালে ৬টি অঞ্চলে কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে। এদের মধ্যে প্রথমে কার্যক্রম শুরু হবে জার্মানিতে। এসব ল্যাবে সারা বিশ্বের ডেভেলপার এবং অংশীদাররা তাদের সেবাসমূহ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে পারবেন। এসব ল্যাবে এআর, ভিআর, এআই, ক্যামেরাকিট, অ্যাবিলিটি গ্যালারি, এইচএমএস কোর এবং অন্যান্য উন্মুক্ত প্রযুক্তিগত সক্ষমতা থাকবে। সৃজনশীল কাজের জন্য এটি হয়ে উঠবে উন্মুক্ত একটি প্ল্যাটফর্ম।

হুয়াওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গ্রাহকদের সর্বোচ্চ মানের সেবা নিশ্চিতে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কনটেন্ট সরবরাহকারীদের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। যেমন—জাপানি প্রতিষ্ঠান আইআইডি ইনকরপোরেশন উদ্ভাবিত বিশেষ থিম স্নোপি, মিফফিসহ জাপানিজ কার্টুন চরিত্রগুলো চলতি মাসের মধ্যে হুয়াওয়ের গ্রাহকদের জন্য হুয়াওয়ে থিমে সংযুক্ত হবে। এ ছাড়াও হুয়াওয়ে ট্যাবোলা নিউজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে, যার মাধ্যমে হুয়াওয়ে ব্যবহারকারীরা দেশ ও ভাষা ভেদে ব্যক্তিগত, আঞ্চলিক কনটেন্টগুলো সময় অনুযায়ী জানতে পারবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here