১০ কোটি ভ্যাকসিন তৈরিতে ভারতকে অর্থ সাহায্য বিল গেটসের সংস্থার

3

অনলাইন ডেস্ক : বিশ্বে প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। সংক্রমণ একমাত্র নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে প্রতিষেধক ভ্যাকসিন। কিন্তু কবে সেই টিকা চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে, তার জন্য মুখিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব। উৎপাদনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থসাহায্য ও পরিকাঠামোও প্রায় প্রস্তুত। শুধু কোনও একটি ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত অনুমোদনের অপেক্ষা।

অন্যান্য দেশের মতো ভারতেও ১০ কোটি করোনার টিকার ডোজ তৈরির ক্ষেত্র প্রস্তুত হয়ে গেল। টিকা তৈরির জন্য বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং গাভি ভ্যাকসিন অ্যালায়েন্সের থেকে ১৫০ মিলিয়ন বা ১৫ কোটি মার্কিন ডলার সাহায্য পাচ্ছে ভারতের টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা সিরাম ইনস্টিটিউট। গাভি হলো প্রাইভেট পাবলিক সংস্থা, যারা বিশ্বের দরিদ্র দেশগুলোতে টিকা সহজলভ্য করে তুলতে অর্থ ও অন্যান্য সাহায্য করে।

২০২১ সালের শেষ নাগাদ ভারত ও অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশের জন্য এই ১০ কোটি টিকা তৈরি হয়ে যাবে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এক বিবৃতিতে সিরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, ভ্যাকসিনের দৌঁড়ে থাকা অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও নোভাভ্যাক্স-এর দাম পড়বে ৩ ডলার, যা ভারতীয় মূদ্রায় প্রায় ২২৫ টাকার কাছাকাছি।

সংস্থা জানিয়েছে, এই ১৫ কোটি মার্কিন ডলার ‘গাভি’-কে দেবে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। ‘গাভি’-র কাছ থেকে সেই অর্থ পাবে সিরাম ইনস্টটিউট। শুধু ভারত নয়, গোটা বিশ্বের মধ্যেই প্রতি বছর সবচেয়ে বেশি টিকা তৈরি করে সিরাম ইনস্টিটিউট। এই সংস্থা প্রতি বছর গড়ে ১৩০ কোটি টিকার ডোজ তৈরি করে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here