৪৪ বছর পর কোপার ফাইনালে পেরু

5

স্পোর্টস ডেস্ক : কোপা আমেরিকায় টানা তৃতীয়বার ফাইনালে খেলার হাতছানি ছিল চিলির। তবে গত দুইবারের চ্যাম্পিয়নদের বিধ্বস্ত করে ৪৪ বছর পর আসরে ফাইনালে উঠলো পেরু। গতকাল ব্রাজিলের পোর্তো আলেগ্রি স্টেডিয়ামে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চিলিকে ৩-০ গোলে হারায় তারা। আগের দিন গত টানা দুইবারের রানার্সআপ আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট কাটে স্বাগতিক ব্রাজিল। আগামী রোববার ঐতিহাসিক মারাকানা স্টেডিয়ামে কোপার ৪৬তম আসরের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ব্রাজিল-পেরু।
আলেক্সিস সানচেজ, আর্তুরু ভিদাল, এডুয়ার্দো ভার্গাসদের মতো চিলির গোল্ডেন জেনারেশনের ফুটবলারদের সামনে সুযোগ ছিল টানা তৃতীয়বার ফাইনালে ওঠার। আগের দুবার তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। দু’বারই আর্জেন্টিনাকে টাইব্রেকে হারিয়ে ল্যাটিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে চিলিয়ানরা। কোপার ইতিহাসে টানা তিনবার শিরোপা জেতার রেকর্ড আছে একমাত্র আর্জেন্টিনার। ১৯৪৫, ১৯৪৬, ১৯৪৭ সালে টানা তিনবার ল্যাটিন আমেরিকার শিরোপা ঘরে তুলেছিল আলবিসেলেস্তেরা।
চলতি কোপার কোয়ার্টার ফাইনালে দক্ষিণ আমেরিকার জায়ান্ট উরুগুয়েকে টাইব্রেকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছিল পেরু।

পোর্তো আলেগ্রিতে পেরুর হয়ে গোল করেন এডিসন ফ্লোরেস, ইয়োশিমার ইওতুন এবং পাওলো গুয়েরেরো।
এদিন ম্যাচ পরিসংখ্যানে এগিয়েই ছিল চিলি। ৬৫ শতাংশ বল দখলে ছিলো চিলির আর ৩৫ শতাংশ বল দখলে রাখতে পেরেছিল পেরু। ম্যাচে চিলি মোট শট নিয়েছে ১৯টি। এর মধ্যে ৭টি ছিল গোলমুখে। অন্যদিকে ৯টি শটই নিতে পেরেছে পেরু। আর মাত্র তিনটি শট ছিল গোলমুখে। তিনটিই গোল।
ম্যাচের ২১তম মিনিটে এডিসন ফ্লোরেসের গোলে এগিয়ে যায় পেরু। উইঙ্গার কারিয়োর পাস থেকে চিলির জালে বল জড়ান ফ্লোরেস। ৩৮তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ইয়োশিকার ইওতুন। এবারো কারিয়োর পাস থেকে গোলটি করেন এই পেরুভিয়ান তারকা। আর ম্যাচের যোগ করা সময়ে (৯০+১) পেরুর শেষ গোলটি করেন স্ট্রাইকার পাওলো গুয়েরেরো।
এবারের কোপায় ব্রাজিলের বিপক্ষে ৫-০ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিল পেরু। আর শেষ ১৯৭৫ সালে কোপা আমেরিকায় শিরোপা জিতেছিল তারা। শনিবার সাও পাওলোতে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে গতবারের দুই ফাইনালিস্ট চিলি এবং আর্জেন্টিনা মুখোমুখি হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here